1. masud.shah@gmail.com : admin :
  2. news.bholacrime@gmail.com : News Editor : News Editor
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ০৯:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
লকডাউন নিয়ে গুজবে কান না দেওয়ার পরামর্শ জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর লালমোহন ভূমি কমিশনার জনাব জাহিদুল ইসলামের মোবাইল কোর্ট পরিচালনা পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষ্যে জননেতা আলহাজ্ব তোফায়েল আহমেদ এর নগদ অর্থ ও ত্রান বিতরন “কার্গো ট্রলার বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়ন”নামে ভোলার মেঘনা নদীতে চলছে কার্গো জাহাজে চাঁদাবাজী “ঘূর্নিঝড় ইয়াসে” ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ত্রানসামগ্রী বিতরন কার্যক্রমে এমপি শাওন ১৮ ই মে ২০২১ থেকে “সিডনি প্রেস অ্যান্ড মিডিয়া কাউন্সিল” এর সদস্য পদে আবেদন শুরু সাংবাদিক রোজিনার মুক্তির দাবীতে ভোলা জেলা অনলাইন প্রেসক্লাবের আলটিমেটাম ও মানববন্ধন বাংলাদেশের কৃষি ও কৃষকের ভাগ্য বদলে দিতে পারে একটি সুপারিশ মালা দৈনিক ভোলার বাণী অফিস পরিদর্শনে নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন এমপি স্বাস্থ্য খাতের অসম দূর্নিতীর তথ্যের ছবি তোলায় প্রথম আলোর সিনিয়র সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে ৫ ঘন্টা আটকে রেখে পুলিশে সোর্পদ

শিশুকে সশ্রম কারাদন্ড দেওয়ায় বিচারকের কাছে লিখিত বিচারিক ব্যাখ্যা চাইলেন মহামান্য হাইকোর্ট

মোঃ মারুফ হাসান/সম্পাদক
  • বুধবার, ১০ মার্চ, ২০২১

বিস্ফোরক দ্রব্যাদি আইনের এক মামলায় দুটি ধারায় এক শিশুকে দোষী সাব্যস্ত করে পাঁচ বছর ‘সশ্রম কারাদণ্ড’ দিয়েছেন বিচারিক আদালত। কোন কর্তৃত্ববলে ওই শিশুকে ‘সশ্রম কারাদণ্ড’ দেওয়া হয়েছে—এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিচারকের কাছে লিখিত ব্যাখ্যা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চ্যুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ বুধবার এ আদেশ দেন। সাজার রায়ের বিরুদ্ধে করা জেল আপিলের গ্রহণযোগ্যতার শুনানিতে বিষয়টি নজরে এলে ওই আদেশ দেওয়া হয়।

চার সপ্তাহের মধ্যে যশোরের শিশু আদালত এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২–এর বিচারক মাহমুদা খাতুনকে ওই বিষয়ে ব্যাখ্যা জানাতে বলা হয়েছে। আর হাইকোর্ট জেল আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করে শিশুটিকে এক বছরের জন্য জামিন দিয়েছেন।বিজ্ঞাপন

নথিপত্রে দেখা যায়, এক মামলায় বাগেরহাটের একটি গ্রামের ওই শিশুর বিরুদ্ধে ১৯০৮ সালের বিস্ফোরক দ্রব্যাদি আইনের ৪ ও ৫ ধারার অভিযোগ বিচারিক আদালতে প্রমাণিত হয়। আইনের ওই দুই ধারায় শিশুটিকে দোষী সাব্যস্ত করে ৪(বি) ধারায় তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং ৫ ধারায় দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন যশোরের শিশু আদালত এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২–এর বিচারক মাহমুদা খাতুন। রায়ের বিরুদ্ধে কারাগার থেকে শিশুটি গত বছর জেল আপিল করেন, যা শুনানির জন্য ওঠে।

ওই আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে নিয়োজিত ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, জেল আপিলের গ্রহণযোগ্যতার শুনানিতে দেখা যায় আপিলকারী একজন শিশু। আইনে শিশুকে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়ার বিধান নেই।বিষয়টি নজরে এলে হাইকোর্ট সংশ্লিষ্ট বিচারক মাহমুদা খাতুনকে ওই বিষয়ে লিখিত ব্যাখ্যা জানাতে নির্দেশ দিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..

 

© All rights reserved © 2020