1. masud.shah@gmail.com : Administrator :
  2. news.bholacrime@gmail.com : News Editor : News Editor
  3. subeditor.bholacrime@gmail.com : Sub Editor : Md. Iqbal Hossain
নিবন্ধন অধিদপ্তরের দূর্নীতি বন্ধে আইজিআর শহীদুল আলম ঝিনুকের সফলতা - Bhola Crime
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:১৬ পূর্বাহ্ন

নিবন্ধন অধিদপ্তরের দূর্নীতি বন্ধে আইজিআর শহীদুল আলম ঝিনুকের সফলতা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
  • রবিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২২

বিস্তারিত : ” আমি ও আমার অফিস দূর্নীতি মুক্ত ” বর্তমান সরকারের এ স্লোগানকে বাস্তবায়িত  করতে নিবন্ধন অধিদপ্তরে দীর্ঘদীন থেকে চলে আসা দূর্নীতি বন্ধে অত্যন্ত সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন নিবন্ধন অধিদপ্তরের বর্তমান মহাপরিদর্শক (আইজিআর)শহীদুল আলম ঝিনুক ৷

তার যোগদানের আগ মুহূর্তে ও নিবন্ধন অধিদপ্তরে দিনের বেলায় লোকজনের  আনাগোনা কম থাকলেও সন্ধ্যা ৬.০০ টা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত বদলি বানিজ্য নিয়ে লোকজনের আনাগোনা ছিলো চোখে পড়ার মত ৷

নিবন্ধন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক হিসেবে যোগদানের পরপরই তিনি উক্ত অধিদপ্তরে পূর্বে কর্মরত সকল অসাধু  কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে দেশের বিভিন্ন জেলায় বদলী করেন ফলে নিবন্ধন অধিদপ্তর পুরোপুরি দালাল মুক্ত হয় এবং বদলি সংক্রান্ত ঘুষ বানিজ্য পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায় ৷

এ নিয়ে কিছু অসাধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীর মধ্যে ক্ষোভ থাকলেও বর্তমান আইজির জনাব শহীদুল আলম ঝিনুক তার সততা ও একাগ্রতা নিয়ে পৌছে গেছেন নিবন্ধন অধিদপ্তরকে  দূর্নীতি মুক্ত করার অভিষ্ঠ লক্ষ্যে ৷ নিবন্ধন অধিদপ্তরে এখন আর কোন দূর্নীতি নেই ৷ বর্তমান সরকার বিদ্যুৎ অপচয় রোধে সরকারী আধা সরকারী অফিসগুলোতে অফিস সময় সূচী সকাল ৮.০০ ঘটিকা থেকে দুপুর ৩.০০ ঘটিকা পর্যন্ত নির্ধারন করেন ৷

সরকারের দেওয়া সেই নির্দেশনাকে সঠিকভাবে পালনের লক্ষ্যে জনাব শহীদুল আলম ঝিনুক সকাল ৮.০০ ঘটিকার মধ্যেই তার কার্য্যালয়ে উপস্থিত হন এবং দুপুর ৩.০০ ঘটিকার মধ্যেই তার প্রাত্যহিক কার্যাদি সমাপ্ত করেন এবং বাংলাদেশের সকল সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে কর্মরত সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঠিক সময়ে অফিসে উপস্থিতির সময়সূচীর বিষয়ে ও সজাগ দৃষ্টি রাখছেন যাহা অন্যান্য সরকারী অফিসের অনেক কর্তাব্যক্তিদের বেলায় সচরাচর চোখে পড়েনা ৷

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের প্রতি শতভাগ আস্থাশীল এবং সরকারের দেওয়া সকল নির্দেশনাকে তিনি শতভাগ মূল্যায়ন করেন এবং বাংলাদেশের ৬৬ টি জেলার জেলা রেজিস্ট্রি অফিসের জেলা রেজিষ্টারদের সকল সরকারী নির্দেশনা মানতে এবং সকল অনিয়ম বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশনা দিয়েছেন ৷

কোথায় ও কোন অনিয়মের ঘটনা ঘটলে তিনি তা নিরসনের লক্ষ্যে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করেন৷

বাংলাদেশের সকল সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস এবং জেলা রেজিষ্ট্রি অফিসের সাংগঠনিক কাঠামো নিয়ন্ত্রিত হয় নিবন্ধন অধিদপ্তর থেকেই ৷

পূর্বে নিবন্ধন অধিদপ্তরের বদলি বানিজ্য ছিলো চোখে পড়ার মত ৷সেই হিসেবে সকল সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের বদলি নিয়োগ নিয়ে চরম অসন্তোষ ও উৎকন্ঠা বিরাজ করতো সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীরদের মধ্যে ৷

বর্তমান আইজির শহীদুল আলম ঝিনুক মহাপরিদর্শক হিসেবে যোগদানের পর সকল অকালীন বদলি বানিজ্য বন্ধ করে দেন ৷এখন নিবন্ধন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে অকালীন বদলি নিয়ে কোন উকন্ঠা নেই বললেই চলে ৷

মোট কথা রেজিষ্ট্রেশন পরিবারের পূর্বের সকল দূর্নীতি বন্ধ করে রেজিষ্ট্রেশন পরিবারকে ঢেলে সাজিয়ে জনাব শহীদুল আলম ঝিনুক প্রমান করেছেন সৎ ও সততা বজায় রাখলে সকল অন্যায় অনিয়ম বন্ধ করা খুব কষ্টসাধ্য বিষয় নয় ৷

বাংলাদেশের প্রতিটি সরকারী অফিসে যদি আইজিআর শহীদুল আলম ঝিনুক এর মত সৎ ও কর্তব্যপরায়ণ কর্মকর্তা থাকতেন তাহলে বাংলাদেশর সকল সেক্টরে দূর্নীতি শূন্যের কোঠায় চলে আসতো বলে রেজিষ্ট্রেশন পরিবার সহ মনে করেন দেশের সাধারন জনগন ৷

উল্লেখ্য যে গত  ২৬ জানুয়ারি- ২০১৮ ইং তিনি এ অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক পদে যোগ দেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার ২৩ জানুয়ারি -২০১৮ ইং সালে আইন মন্ত্রণালয়ের অধীন আইন ও বিচার বিভাগ থেকে শহীদুল আলম ঝিনুকের পদ থেকে বদলি করে পুনরাদেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিবন্ধন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক পদে প্রেষণে নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

জনাব শহীদুল আলম ঝিনুক দশম বিসিএসে উত্তীর্ণ হয়ে ১৯৯১ সালে বিচার ক্যাডারে যোগ দেন। তিনি ২০১৫ সালে জেলা জজ পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত হন এবং ঢাকায় স্পেশাল জজ হিসেবে দায়িত্ব পালন করার সময় ওই বছরের মে মাসে আর্ন্তজাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের রেজিষ্ট্রার পদে নিয়োগ পান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020-2022